মনোযোগ বৃদ্ধির রকম-সকম!

মনোযোগ

“মন বসে না পড়ার টেবিলে”, “মন বসে না কাজে” এসব বাক্য অনেকের জন্যই প্রায়ই ভয়ংকরভাবে সত্যি হয়ে যায়। পড়তে বসলে, কাজ করার সময় করণীয় কাজ ছাড়া বাকি সব কিছুই আকর্ষনীয় হয়ে ওঠে। তখন কাজ নিয়ে বসে আগডুম-বাগডুম-ঘোড়াডুম নিয়ে ভাবতে বসে যাওয়া অনেকেরই অভ্যাস। ফলাফল – ঘন্টার পর ঘন্টা পার হয়ে যায় কিন্তু কাজ শূন্য। আবার পড়তে বসলে ঠিকমত মনোযোগ না বসায় সময় পেরিয়ে গেলেও পড়া আত্মস্থ হয় না। মনোযোগ কম থাকার এ সমস্যা বেশ গুরুতর বিধায় এটি দূর করার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া বাঞ্ছনীয়।

বয়ঃসন্ধিকালে এ সমস্যা সবচেয়ে গুরুতর আকার ধারণ করে। এ সময়ে দেহ-মনে নানা পরিবর্তন আসে। এর ফলে মনোযোগ কমে যায়। এ সমস্যা থেকে সমাধান পেতে যোগব্যয়াম খুব কার্যকর। এর ফলে মন শান্ত হয় এবং কাজে ও পড়াশোনায় মনোযোগ বাড়ে।

পড়তে বসার সময় শিক্ষার্থীদের অন্যান্য সকল চিন্তাকে দূরে রাখায় সচেষ্ট হতে হবে। ফোন-টিভি প্রভৃতি সকল “distractions” দূরে রাখতে হবে। কোলাহলমুক্ত আরামদায়ক স্থানে পড়তে বসা উচিত। তবে তা যেন খুব বেশি আরামের না হয় নতুবা ঘুমিয়ে পড়ার সম্ভাবনা আছে 😛

মনোযোগ

খুব বেশি চাপ নিয়ে কখনোই পড়া হয় না। মানসিক চাপ মনোযোগ ব্যাহত করে। চাপমুক্ত ভাবে পড়তে হবে। পড়ার টপিককে নিজের কাছে আকর্ষনীয় করে তুলতে পারলে মনোযোগ যথেষ্ট বৃদ্ধি পায় ও পড়া সহজে আত্মস্থ হয়।

না বুঝে মুখস্থ করলে পড়া সাধারণত মনে থাকে না। না বুঝে পড়তে থাকলে সেই পড়ার প্রতি মনোযোগও কমে যায় এবং বেশিক্ষণ পড়া যায় না।

একটানা বেশিক্ষণ পড়লেও মনোযোগ ধীরে ধীরে হ্রাস পায় ফলে শেষের দিকের পড়া মনে থাকে না। কিছুক্ষণ পর পর ১০-১৫ মিনিট ব্রেক নিয়ে নিয়ে পড়া উচিত। তাতে মস্তিষ্কের উপর চাপ কম পড়ে ও তা বেশি কার্যকর হয়। অর্থাৎ মনোযোগও বৃদ্ধি পায়।

নাওয়া-খাওয়া-ঘুম সব ভুলে পড়া একটি মারাত্মক বদঅভ্যাস। অপর্যাপ্ত ঘুম মনোযোগ মারাত্মক ভাবে হ্রাস করে থাকে। খাওয়া-ঘুম প্রভৃতি কম হলে তা শরীরের উপর খারাপ প্রভাব ফেলে যা মনের জন্যও ক্ষতিকর। তাই এভাবে পড়াশোনাও ভালোভাবে করা যায় না।

মনোযোগ-

মনোযোগ খুব বেশি কম হলে অনেক সময় তা মস্তিষ্কের কোন অস্বাভাবাবিকতার জন্যও হয়ে থাকে। তাই কোন বিষয়ে মনোসংযোগ করার হার মাত্রাতিরিক্ত ভাবে কম হলে চিকিৎসকের সাথে যোগাযোগ করা উচিত।

এসকল বিষয় শুধু শিক্ষার্থী না বরং সকলের জন্যই প্রযোজ্য। উপরোক্ত নিয়মাদি যথাযথভাবে মেনে চললে নির্দিষ্ট কাজে মনসংযোগ করার ক্ষমতা বাড়তে বাধ্য!

ইমেইলে নতুন লেখাগুলো পেতে সাইন আপ করুন 🙂

দেবশ্রী মুখার্জী টুনটুনি
 

সাধারণ একটা মেয়ে, নিজের স্বপ্নকে বাস্তবে পরিণত করতে চাই...:)

চুলের সমস্যায় ভুগছেন? জেনে নিন মাথায় নতুন চুল গজানোর উপায়