3

দেশ বাঁচাতে ধোঁয়া!

দেশের স্বার্থে কিছু করাটা মোটেও সহজ কাজ না। প্রতিদিন যাদের ধোঁয়া টানতে মানে সিগারেট খেতে দেখি, তাদের জন্য গর্ব হয়। হতবাক হবেন না। যান্ত্রিক জীবনে এত সময় কোথায় বলেন? দেশের কত সমস্যা! আপনি, আমি সেগুলোর সমাধান করতে পারি? সেক্ষেত্রে বলতে হয়, “দেশ আমাকে কি দিয়েছে?” বেঁচে থাকার শেষ নিবাস আর সকল বিপদের আশ্রয় এই দেশটাকে তো আর মা বলা যায় না। মা হলেই বা কি? এতো সময় আছে নাকি! কত কাজ আর সবশেষে সময় পেলে একটু আমোদের ব্যবস্থাও তো করতে হয়! এসব বলে সময় নষ্ট করাবো না। যাদের জন্য লেখা মানে এতো কিছুর পরও যারা দেশের সবচেয়ে বড় সমস্যা সমাধানে সর্বক্ষণই নিয়োজিত তাদের তো সম্মান দিতেই হয়।

‘জনসংখ্যা বৃদ্ধি’ আমাদের দেশের জন্য এখন হুমকিস্বরূপ। সেদিক দিয়ে এই যে যারা দিন-রাত পরিশ্রম করে ধোঁয়া টানছে আর এই সমস্যা কিছুটা হলেও নির্মূল করছে তাদের জন্য গর্ব হবে না বলুন?? আপনি, আমি তাদের বাঁধা তো দিতে পারি না। তারা দেশ ও জাতির বৃহৎ স্বার্থে নিজের সকল স্বপ্ন তুচ্ছ করে শুধুমাত্র আপনার এবং আমার জন্য এই কষ্টসাধ্য কাজটি করে যাচ্ছে। আমাদের উচিৎ তাদের পাশে এসে দাঁড়ানো। আমরা না পারি, তারা তো পারবে, দেশ ও জাতির মুখ উজ্জ্বল করবে। ছোটবেলায় এই মহৎ উদ্দেশ্যের কথা বুঝতে পারতাম না। তখন যাচ্ছেতাই গালি দিতে মন চাইতো। তবে তা সম্ভব না হওয়ায় বড় হওয়ায় প্রতীক্ষায় থাকতাম। পরে নিজের বন্ধুদেরও এতে নিয়োজিত হতে দেখায় এবং মূল উদ্দেশ্য বুঝতে পারায় আর কিছু বলা হয়নি!

smoking

এখন তাদের সংখ্যা ধীরে ধীরে বাড়ছে। এতে করে অন্যরাও উৎসাহিত হচ্ছে। সবাই তাদের পথে যাক এটাই তো আমাদের কামনা! এতে অবাক হওয়ার কিছু নেই। বরং আমাদের উচিৎ এদের ধন্যবাদ জানানো। এদের জন্যই দেশ আজ উন্নতির পথে। শতকরা প্রায় ৪০ শতাংশ মানুষ না খেতে পারলেও ধোঁয়া টানতে পিছপা হন না। আর কি দরকার! এরা আমাদের পাশে থাকলে আমরাও দেশের উপকারে আসবো! সেদিন জানলাম এতে শুধু দেশ ও জাতির নয় তাদের নিজেদেরও উপকার হয়। বিভিন্ন ওষুধের নাকি আর দরকার পরে না। এতে আপনার মতো আমিও বেশ কৌতূহল বোধ করলাম। পরে জানলাম মাথা ব্যাথা কমে যায়। তখন মনে হল যাক, আর যাই হোক মাথা কেটে তো ফেলতে হবে না। বাকিরা তো বোকা! এতো ভালো ওষুধ থাকতে কতই না কষ্ট সহ্য করছে। তারপর জানলাম দেশের স্বার্থে নিয়োজিত মহান ভাই-বোনদের নাকি এছাড়া হজম হয় না। এসব তো আর নিছক ভাবনা না বলুন? এরপর থেকে এদের প্রতি আমার সম্মান আরও বেড়ে গেলো।

এতো বড় কাজের জন্য পুরষ্কারও তো থাকা উচিৎ! আছে বৈকি, অবশ্যই আছে! আপনাদের জন্য একনজরে ধোঁয়া টানার সুফল ও এর পুরস্কারঃ 

#শ্বাসকষ্ট

#রক্তচাপ বৃদ্ধি

#হৃদকম্পন বৃদ্ধি

#স্ট্রোক 

এবং পুরষ্কার স্বরূপ ক্যান্সার, ফলাফল মৃত্যু।

 

এরপরও আপনি ধূমপান থেকে বিরত থাকবেন? আমি তো বলি সিগারেট ফ্রি তে দেয়া উচিৎ, যারা দেশের এতো উপকার করছে তাদের জন্য আমরা এই টুকুন করতে পারি না?? এতে তাদের স্বস্তি দেখে আমরাও স্বস্তি পাবো। ইতি ধোঁয়া।।

ইমেইলে নতুন লেখাগুলো পেতে সাইন আপ করুন 🙂

অচ্যুত সাহা জয়
 

"কখনো কোনো পাগলকে সাঁকো নাড়ানোর কথা বলতে হয় না। আমরা বলি না। আপনি বলেছেন। এর দায়দায়িত্ব কিন্তু আর আমার না - আপনার!"